Friday, 26 January 2018

ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না এই কথাটিই জীবনকে পদে পদে বিপদ থেকে বাঁচায় এবং পরিস্থিতির কাছে সম্মানিত করে ......

আজ আমার অনেক টাকা আছে তাই সবার কাছে আমি মূল্যবান এবং সম্মানিত। যখন থাকবে না, তখন আমার নামটা শোনা মাত্রই অতিরিক্ত বোঝা মনে হবে সবার কাছে। এটাই কিন্তুু বাস্তবতা ....
দিতে পারলে খুুউব ভালো, না দিতে পারলে অহংকারি, কিপ্টা কতকি শোনা লাগে মানুষের কাছে, অথচ মানুষের দিনকাল সবসময় এক যায় না।
আমি দেখেছি এমন বহুবার ...
টাকাই চেহারার উজ্জ্বলতা বাড়ায় আবার টাকাই সম্পর্কের মাঝে দেঁয়াল তৈরি করে।
একটা সময় বহু মানুষের আপদে বিপদে দৌঁড়ে গেছি, নিজের থেকে সাহায্যে হাত বাড়িয়েছি, হঠাৎ দিনকাল একটু খারাপ যাওয়াতে আগের মতো তেমন পারিনি সকলের মন জয় করতে .. কিন্তুু বহু চেনা মুখের কালো মুখ দেখে চমকে গিয়েছি বারবার।
টাকার প্রয়োজন নেই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন, রাস্তার নেংটা পাগলের কাছে ৫টাকা হলেও পাবেন শিউর। কেননা তার টাকার প্রয়োজন খাদ্যের জন্য বা অন্যকোন প্রয়োজনে।
আমাদের ও নিত্যদিনের চলাফেরাতে এবং সংসারের উন্নতির জন্য টাকার প্রয়োজন আছে। নিজেকে বিপদগ্রস্থ করে অন্যকে সাহায্য করাটা কতটা মহৎ গুন আমার জানা নেই। আমি জানি, আমি বুঝি ... নিজেকে অন্যের মুখাপেক্ষী করাটাও লজ্জাজনক।
তাই সময় থাকতে রেখো খাও কথাটি মুরুব্বীরা
যথার্থই বলেছেন ......
অপরকে খুশি করতে করতে নিজের পরিবারে দূর্ভ্যোগ আনাটা মোটেও সুবিবেচনার বলে আমার মনে হয় না। মানুষের কল্যাণে পাশে থাকাটা অবশ্যই ভালোমানুষির গুন, তবে নিজের পরিবারকে কষ্টে রেখে নয়।
সংসার একটা ইবাদত যেমন তেমনি হাসি দিয়ে কথা বলাটাও ইবাদত। তাই যদি সামর্থ্য নাই থাকে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য, তাহলে মুখের নির্মল হাসিটুকুন দান করুন অপরের জন্য এবং দোয়া করুন তার জন্য যারা প্রত্যাশায় ছিল আপনার সাহায্যের জন্য ........
পরিশেষে আমার ছোট মতামত : টাকা দিয়ে অন্যকে খুশি করতে যেয়ে নিজের আত্মার মৃত্যু কাছে টেনে আনাটা বোকামি ছাড়া কিছুই নয় !!
অন্যরা আপনার সমস্যা নিয়ে ততট ভাবে না, যতটা আপনি ভাবতে ভাবতে অস্থির।
সুতরাং ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না এই কথাটিই জীবনকে পদে পদে বিপদ থেকে বাঁচায় এবং পরিস্থিতির কাছে সম্মানিত করে ......
ফারজানা

No comments:

Post a Comment